শিরোনাম:
●   ভোলায় ছাত্রদলের সভাপতি নিহতের ঘটনায় ৩৬ পুলিশের বিরুদ্ধে আদালতে দ্বিতীয় মামলা ●   ভোলায় গুলিতে নিহতের ঘটনায় স্বরাষ্ট্র সচিবসহ পুলিশের কর্তাদের ১৪ আইনজীবীর লিগ্যাল নোটিশ ●   চরফ্যাসনে অগ্নিকাণ্ডে ২৫ দোকান পুড়ে ছাই ●   ভোলায় পুলিশের গুলিতে জেলা ছাত্রদল সভাপতি নিহতের প্রতিবাদে সকাল-সন্ধ্যা ডাকা হরতাল প্রত্যাহার ●   ভোলা আদালতে ৩৬ পুলিশের বিরুদ্ধে নিহত রহিমের স্ত্রীর হত্যা মামলা দায়ের ●   ভোলায় ছাত্র দলের সভাপতির মৃত্যুর প্রতিবাদে উত্তাল, সড়ক অবোধ, বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ●   ভোলায় বিএনপির সমাবেশে গুলিবিদ্ধ জেলা ছাত্রদের সভাপতি নুরে আলম মারা গেছে! শোক ও নিন্দা জ্ঞাপন ●   ভোলায় বিএমএসএফ’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত ●   ভোলায় বিএনপির সমাবেশে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে নিহত ১, আহত শতাধিক, আটক ১১ ●   লালমোহনে দশ জুয়াড়ি জেল হাজতে, মিশ্র প্রতিক্রিয়া
ভোলা, বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২, ২ ভাদ্র ১৪২৯

ভোলার সংবাদ
রবিবার ● ২৫ জুলাই ২০২১
প্রথম পাতা » চরফ্যাশন » দুলারহাটে হাফিজিয়া মাদ্রাসার জমিতে মার্কেট করতে বাঁধা দেওয়ায় হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ যুবলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে!
প্রথম পাতা » চরফ্যাশন » দুলারহাটে হাফিজিয়া মাদ্রাসার জমিতে মার্কেট করতে বাঁধা দেওয়ায় হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ যুবলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে!
৫৫৩ বার পঠিত
রবিবার ● ২৫ জুলাই ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

দুলারহাটে হাফিজিয়া মাদ্রাসার জমিতে মার্কেট করতে বাঁধা দেওয়ায় হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ যুবলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে!

 

---

বিশেষ প্রতিনিধি: ভোলার চরফ্যাশনের আহমেদপুর হাফিজিয়া মাদ্রাসার পুকুর ভরাট করে মার্কেট করতে বাঁধা দেওয়া মাদ্রাসায় ভাঙচুর, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে নুরাবাদ ইউনিয়নের সাবেক যুবলীগের সভাপতি হাসনাইন এর বিরুদ্ধে।  গত ২০ শে জুলাই বিকালে আহমদ পুর ৩নং ওয়ার্ডের আলীবাজার কেরাতুল কোরআন হাফিজিয়া মাদ্রাসায় এ-ই ঘটনা ঘটে। এ-ই ঘটনায় স্থানীয়দের মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, আলীবাজার কেরাতুল কোরআন হাফিজিয়া মাদ্রাসার সভাপতি আব্দুল হক এর ছেলে ও নুরাবাদ ইউনিয়নের সাবেক যুবলীগের সভাপতি হাসনাইন জোর পূর্বক  ও-ই হাফিজিয়া মাদ্রাসার একটি পুকুর ভরাট করে কয়েক মাস ধরে মার্কেট করার পায়তারা করে আসছে । এতে মাদ্রাসার শিক্ষক ও কর্তৃপক্ষ বাধা দিলে হাসনাইন ক্ষিপ্ত হয়ে ঈদ উল আযহার আগের দিন মাদ্রাসায় ঢুকে  এলোপাথাড়ি ভাবে চেয়ার টেবিল ও দরজা জানালা ভাঙচুর করেন।

এসময় মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক হাফেজ মাহমুদ ও সেক্রেটারি কামরুল মেম্বার বাধা দিলে তাদের কেউ শারীরিক ভাবে  লাঞ্ছিত করেন হাসনাইন।

এলাকাবাসী অভিযোগ করেন, এই ঘটনার প্রায় ২০ দিন আগে হাসনাইন মাদ্রাসার ঢুকে মাদ্রাসা  শিক্ষক ও কোমলমতি শিশুদের উপর এলোপাতাড়ি ভাবে হামলা করে তাদেরকে মাদ্রাসা থেকে বের করে দেন। এসময় রিয়া (১১) নামের এক শিক্ষার্থীর মাথা পাটিয়ে দেয় হাসনাইন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক এলাকাবাসী অভিযোগ করেন, হাসনাইন যুবলীগের সাইনবোর্ড লাগিয়ে ও স্থানীয় চেয়ারম্যানের ছত্রছায়ায় এমন কোন অপরাধ ও অপকর্ম নেই সেই না করে। তার অত্যাচারে এলকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। কেউ তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে তাকে বিভিন্ন ভাবে হামলা ও নির্যাতন করে থাকে।

হাফিজিয়া মাদ্রাসার সেক্রেটারি কামরুল মেম্বার ও মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক হাফেজ মাহমুদ  হামলা ও ভাংচুরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এই ব্যাপারে মাদ্রাসার সভাপতি আব্দুল হক এর মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

অভিযুক্ত সাবেক যুবলীগের সভাপতি হাসনাইন হামলার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন,  এটি মাদ্রসার জায়গা না। এটি আমাদের জমি। তা ছাড়া তার বাবা যে মাদ্রাসায় ১২ শতাংশ জমি দলিল করে দিয়েছেন তা টিকবে না বলে তিনি দাবি করেন।

এব্যাপারে দুলাল হাট থানার এস আই হেলাল উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। তাদের ভাই ভাইদের জমি জমার বিষয় নিয়ে ও হাফিজিয়া মাদ্রাসার দরজা জানালা ভাংচুর করা হয়েছে। এখনো কোন লিখিত অভিযোগ না পাওয়া কোন ব্যবস্থা নেওয়া যায়নি।

-এফএইচ





আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)