শিরোনাম:
●   লালমোহনে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীকে চড় মারলেন আ’লীগের সম্পাদক ●   ভোলায় রিমালের আঘাতে ঘরচাপায় নিহত ৩, আহত ১০, ঘর বাড়ি বিধ্বস্ত, বেড়িবাঁধ ধ্বস প্লাবিত, অন্ধকারে জেলাবাসী ●   লালমোহনের ধলীগৌরনগর ইউপিতে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মাকসুদুর রহমান ●   লালমোহনে ডিএসবির এসআইকে পেটালেন শালিক প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা ●   ভোলায় তিন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ইউনুছ, মনজুর আলম, জাফর উল্যাহ নির্বাচীত চেয়ারম্যান ●   ভোলার কর্ণফুলী-৩ লঞ্চে চাঁদপুরের মোহনায় অগ্নিকাণ্ড ●   উদ্ভাস-উন্মেষ-উত্তরণ এখন দ্বীপ জেলা ভোলায় ●   ভোলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আ’লীগের সমর্থিত প্রার্থী বশীর উল্লাহ সভাপতি, সম্পাদক মাহাবুবুল হক লিটু নির্বাচিত ●   ভোলা জেলা প্রশাসকের সাথে আইনজীবী সমিতির মতবিনিময় ●   চরফ্যাশনে দুর্বৃত্তদের আগুনে পুড়লো চট্টগ্রামগামী বাস
ভোলা, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১

ভোলার সংবাদ
মঙ্গলবার ● ২৭ মার্চ ২০১৮
প্রথম পাতা » বিশ্ব » মালয়েশিয়ায় ভুয়া খবর প্রকাশে ১০ বছরের জেলের প্রস্তাব
প্রথম পাতা » বিশ্ব » মালয়েশিয়ায় ভুয়া খবর প্রকাশে ১০ বছরের জেলের প্রস্তাব
৬৩৫ বার পঠিত
মঙ্গলবার ● ২৭ মার্চ ২০১৮
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

মালয়েশিয়ায় ভুয়া খবর প্রকাশে ১০ বছরের জেলের প্রস্তাব

---

ডেস্ক: মিথ্যা সংবাদের প্রকোপ থেকে বাঁচতে অত্যন্ত কঠোর আইন করতে চলেছে মালয়েশিয়া। দেশটির প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক ভুয়া সংবাদ প্রচারকারীদের শাস্তির জন্য সর্বোচ্চ ১০ বছর কারাদণ্ডের প্রস্তাব দিয়েছেন। গত ২৬ মার্চ দেশটির পার্লামেন্টে তিনি এই সম্পর্কিত একটি বিল উত্থাপন করেন।

নাজিব রাযাকের প্রস্তাবিত ওই বিলে কারাদণ্ডের বিধান ছাড়াও ভুয়া সংবাদ প্রচারে জড়িত ব্যক্তিকে ৫ লাখ রিঙ্গিত পর্যন্ত জরিমানার উল্লেখ রয়েছে। অর্থাৎ অপরাধ প্রমাণ হলে জড়িত ব্যক্তিকে সর্বোচ্চ ১০ বছরের কারাদণ্ড অথবা ৫ লাখ রিঙ্গিত (১ লাখ ২৮ হাজার ডলার) জরিমানা কিংবা উভয় দণ্ডেই দণ্ডিত হতে পারেন।

বলা হয়, মিথ্যা সংবাদের কারণে মালয়েশিয়ার আসন্ন জাতীয় নির্বাচনের নিরপেক্ষতা ও স্বচ্ছতা যাতে লঙ্ঘিত না হয়, সেজন্যই এমন প্রস্তাব। প্রস্তাবিত বিলে বলা হয়েছে, কোনো সংবাদ, ছবি, ভিডিও অথবা অডিও’তে আংশিক বা পুরোপুরি ভুল তথ্য পরিবেশন করা হলে তা ভুয়া সংবাদ বলে বিবেচিত হবে।

বিলে সংবাদ এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত যে কোনো খবর এই আইনের অধীনে থাকবে বলেও উল্লেখ করা হয়। তাছাড়া দেশের বাইরে থেকেও কেউ এই ধরনের কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকলে তা তদন্ত করে দেখা হবে।

সরকারপক্ষ এই বিলের বিষয়ে সাধুবাদ জানালেও বিরোধীদল এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। ওইদিন বিরোধীরা বিলের সমালোচনা করে বলেন, বাক স্বাধীনতা ও গণমাধ্যমের ক্ষমতাকে খর্ব করার জন্য সরকার এমন কৌশলের আশ্রয় নিয়েছে।

-পিডি/এফএইচ





আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

© 2024 দ্বীপের সাথে ২৪ ঘণ্টা Bholar Sangbad, সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।