শিরোনাম:
●   লালমোহনে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীকে চড় মারলেন আ’লীগের সম্পাদক ●   ভোলায় রিমালের আঘাতে ঘরচাপায় নিহত ৩, আহত ১০, ঘর বাড়ি বিধ্বস্ত, বেড়িবাঁধ ধ্বস প্লাবিত, অন্ধকারে জেলাবাসী ●   লালমোহনের ধলীগৌরনগর ইউপিতে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মাকসুদুর রহমান ●   লালমোহনে ডিএসবির এসআইকে পেটালেন শালিক প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা ●   ভোলায় তিন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ইউনুছ, মনজুর আলম, জাফর উল্যাহ নির্বাচীত চেয়ারম্যান ●   ভোলার কর্ণফুলী-৩ লঞ্চে চাঁদপুরের মোহনায় অগ্নিকাণ্ড ●   উদ্ভাস-উন্মেষ-উত্তরণ এখন দ্বীপ জেলা ভোলায় ●   ভোলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আ’লীগের সমর্থিত প্রার্থী বশীর উল্লাহ সভাপতি, সম্পাদক মাহাবুবুল হক লিটু নির্বাচিত ●   ভোলা জেলা প্রশাসকের সাথে আইনজীবী সমিতির মতবিনিময় ●   চরফ্যাশনে দুর্বৃত্তদের আগুনে পুড়লো চট্টগ্রামগামী বাস
ভোলা, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ভোলার সংবাদ
শনিবার ● ৩০ অক্টোবর ২০২১
প্রথম পাতা » খেলা » দুই ছক্কায় মিলারের ‘লঙ্কাজয়’
প্রথম পাতা » খেলা » দুই ছক্কায় মিলারের ‘লঙ্কাজয়’
৫৩৮ বার পঠিত
শনিবার ● ৩০ অক্টোবর ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

দুই ছক্কায় মিলারের ‘লঙ্কাজয়’

---

ডেস্ক: বল হাতে দারুণ এক হ্যাটট্রিকে ম্যাচটা প্রায় দক্ষিণ আফ্রিকার হাত থেকে বের করে এনেছিলেন শ্রীলঙ্কার স্পিনার হাসারাঙ্গা। কিন্তু ব্যাট হাতে শেষদিকে মাত্র ২ ছক্কা হাঁকিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার জয়ের নায়ক ডেভিড মিলার। তবে রাবাদার ১ চার ও ১ ছক্কায় ৭ বলে ১৩ রানের গুরুত্বও কোনো অংশে কম নয়। সুপার টুয়েলভের ম্যাচে শনিবার শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কাকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। শুরুতে ব্যাট করতে নেমে সব উইকেট হারিয়ে ১৪২ রান সংগ্রহ করে লঙ্কানরা। জবাবে ৬ উইকেট হারালেও ১ বল হাতে রেখে জয় তুলে নেয় প্রোটিয়ারা। লক্ষ্য তাড়ায় নেমে ধীরস্থির শুরুর পর দুশমন্থ চামিরার বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন রিজা হেনড্রিকস (১১)। এর কিছুক্ষণ পর চামিরার বলেই কট অ্যান্ড বোল্ড হয়ে বিদায় নেন কুইন্টন ডি কক (১২)। এরপর ঘুরে দাঁড়ানোর পথেই ছিল প্রোটিয়ারা। কিন্তু অষ্টম ওভারের শেষ বলে অধিনায়ক টেম্বা বাভুমার সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হন রাসি ফন ডার ডুসেন (১৬)।  ৪৯ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর বাভুমা ও এইডেন মার্করামের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা। দুজনের জুটিতে আসে ৪৭ রান। তবে ইনিংসের ১৫তম ওভারের শেষ বলে হাসারাঙ্গার দারুণ এক ঘূর্ণিতে মার্করাম (১৯) বোল্ড হলে ফের চাপ বাড়ে। শেষ ৪ ওভারে প্রোটিয়াদের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৪১ রান।  ১৭তম ওভারে চামিরার বলে বাভুমার ছক্কাসহ আসে ১০ রান। ফলে ১৮ বলে লক্ষ্য নেমে আসে ৩১ রানে। কিন্তু ১৮তম ওভারে হাসারাঙ্গার প্রথম বলে ছক্কা মারতে গিয়ে বাউন্ডারি লাইনে থাকা নিশাঙ্কার হাতে ক্যাচ তুলে দেন বাভুমা। ৪৬ বলে ঠিক ৪৬ রান করেই বিদায় নেন তিনি। পরের বলেই প্রিটোরিয়াসকে (০) রাজাপাকসের ক্যাচে পরিণত করে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন হাসারাঙ্গা।  

হ্যাটট্রিক পূর্ণ করার পরের বলেই রাবাদাকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে আবেদন করেন হাসারাঙ্গা। কিন্তু আম্পায়ার আবেদনে সাড়া দেননি। লঙ্কানরা অবশ্য রিভিও নিয়েছিল। কিন্তু সিদ্ধান্ত পাল্টায়নি। ওই ওভারটাই ম্যাচ ঘুরিয়ে দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মিলার সব পাল্টে দিলেন।

শেষ ১২ বলে প্রোটিয়াদের প্রয়োজন ছিল ২৫ রান। ১৯তম ওভারে রাবাদার ছক্কাসহ আসে ১০ রান। ফলে ফাইনাল ওভারে ১৫ রানের লক্ষ্য দাঁড়ায়। শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলেই বিশাল ছক্কা হাঁকিয়ে লক্ষ্যটাকে ৪ বলে আটে নামিয়ে আনেন মিলার। পরের বলেই আবার ছক্কা। যা লঙ্কানদের ম্যাচ থেকেই ছিটকে দিল। শেষ বলে বাউন্ডারিতে ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন রাবাদা। মিলার ১৩ বলে ২৩ রানে অপরাজিত থাকেন।

এর আগে টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। এই ম্যাচে প্রোটিয়াদের একাদশে ফেরেন হাঁটু মুড়ে বসতে অস্বীকার করে আগের ম্যাচ থেকে নাম প্রত্যাহার করা কুইন্টন ডি কক। ভুল বুঝতে পেরে ক্ষমা চাওয়ায় দলে ফেরানো হয় তাকে। এরপর আজকের ম্যাচের আগে দলের বাকিদের মত হাঁটু মুড়ে বসেন তিনি। যদিও ব্যাট হাতে খুব একটা ভালো করতে পারেননি তিনি।

শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে শ্রীলঙ্কার ব্যাটাররা রান তুলতে হিমশিম খাচ্ছিলেন। এর মধ্যে দলীয় ২০ রানেই বিদায় নেন ওপেনার কুশল পেরেরা (৭)। এরপর চারিথ আসালাঙ্কা দুই চার ও এক ছক্কায় ২১ রান করে বিদায় নিলে চাপ আরও বাড়তে থাকে। এরপর দ্রুত বিদায় নেন ভানুকা রাজাপাকসে (০) ও আভিশকা ফার্নান্দো (৩)। দুজনেই প্রোটিয়া স্পিনার তাবরেজ শামসির বলে তার কট অ্যান্ড বোল্ড হয়ে ফেরেন।

তবে চাপের মধ্যেও এক প্রান্ত আগলে রেখে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন লঙ্কান ওপেনার পাথুম নিশাঙ্কা। ৪৬ বলে ফিফটি তুলে নেন তিনি। অন্য প্রান্তে তখন একে একে বিদায় নেন ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা (৪), দাসুন শানাকা (১১) এবং চামিকা করুণারত্নে (৫)। নিশাঙ্কা অবশ্য হাল ছাড়েননি। ১৯তম ওভারের চতুর্থ বলে অষ্টম উইকেট হিসেবে বিদায় নেওয়ার আগে ৫৮ বলে ৬ চার ও ৩ ছক্কায় ৭২ রান করেন তিনি।  

বল হাতে দক্ষিণ আফ্রিকার তাবরেজ শামসি ও ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস ৩টি করে উইকেয় নিয়েছেন। দুজনেই খরচ করেছেন ১৭ রান করে। তবে শামসি এক ওভার বেশি বল করেছেন। এছাড়া ডানহাতি ফাস্ট বোলার এনরিক নরকিয়া নিয়েছেন ২ উইকেট। নরকিয়া অবশ্য নিজের শেষ বলে একটি রান আউটও করেছেন।  ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ‘বিশ্বসেরা’ স্পিনার শামসি। এই নিয়ে ৩ ম্যাচে ২ জয়ে গ্রুপ-১ এর পয়েন্ট টেবিলের তিনে উঠে এলো দক্ষিণ আফ্রিকা। শ্রীলঙ্কা সমান ম্যাচে ১ জয় নিয়ে চারে শ্রীলঙ্কা। ৩ ম্যাচে এক জয় নিয়ে চারে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং সমান ম্যাচ খেলে কোনো জয় না পাওয়া বাংলাদেশ আছে ছয়ে। ২টি করে জয়ে শীর্ষে ইংল্যান্ড এবং দুইয়ে অস্ট্রেলিয়া।  

-রাজ





আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

© 2024 দ্বীপের সাথে ২৪ ঘণ্টা Bholar Sangbad, সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।