শিরোনাম:
ভোলা, শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

ভোলার সংবাদ
সোমবার ● ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২২
প্রথম পাতা » জেলার খবর » মনপুরায় জমি পেয়ে খুশি ভুমিহীন পরিবার
প্রথম পাতা » জেলার খবর » মনপুরায় জমি পেয়ে খুশি ভুমিহীন পরিবার
২০৫ বার পঠিত
সোমবার ● ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

মনপুরায় জমি পেয়ে খুশি ভুমিহীন পরিবার

---

মনপুরা প্রতিনিধি: মনপুরায় দীর্ঘ ১০ বছর পর ৮শত ভুমিহীনদের কৃষি খাসজমির দখল বুঝিয়ে দিচ্ছেন ভুমি বন্দোবস্ত কমিটি। মনপুরার মুল ভুখন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন চর সোনারচর ও চর নজরুল ২০১২ সালে ৮শত ভুমিহীন পরিবারের মাঝে জমি বন্দোবস্ত দিয়েছেন ভুমি বন্দোবস্ত কমিটি। দীঘদিন বন্দোবস্ত পাওয়া ভুমিহীন পরিবার তাদের দখল বুঝে পায়নি। দখল বুঝে পাওয়ার জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ২নং হাজির হাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নিজামউদ্দিন হাওলাদার নের্তৃত্বে ভুমি বন্দোবস্ত কমিটি কৃষি খাসজমির দখল সরজমিনে বুঝে দেওয়ার কার্যক্রম শুরু করেন।

তারই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার ও শনিবার সোনারচর ও চর নজরুল বন্দোবস্ত পাওয়া ভুমিহীনদের নিয়ে জমির দখল বুঝিয়ে দিচ্ছেন ভুমি বন্দোবস্ত কমিটি। জমির দখল বুঝে পেয়ে খুব খুশি ভুমিহীন পরিবার। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ভুমিহীনদের মাঝে কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত দিয়েছিলেন ভুমিবন্দোবস্ত কমিটি। প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি কেউ ভুমিহীন থাকবেনা। সবাই জমি পাবে। কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত  পাওয়া ভুমিহীন পরিবারের মাঝে জমির দখল বুঝে দেওয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও আ’লীগ সভাপতি শেলিনা আকতার চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ শামীম মিঞা, ২নং হাজির হাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ নিজামউদ্দিন হাওলাদার, ৪নং দক্ষিন সাকুচিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ অলিউল্লাহ কাজল, উপজেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি আবুয়াল হোসেন আবু মেম্বার, প্রেসক্লাব সাবেক সাধারন সম্পাদক মোঃ ছালাহউদ্দিনসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।

জমির দখল বুঝে পেয়ে খুব খুশি সুলতান আহম্মদ মাঝি, মোঃ কাজল, মোঃ মামুন বলেন দীঘদিন আমরা আমাদের নামে বন্দোবস্ত দেওয়া জমি দখল বুঝে পায়নি। এখন ইউএনও স্যার ও চেয়ারম্যান আমাদের জমির দখল সরজমিনে মেপে বুঝিয়ে দিয়েছেন। আমরা এখন জমি চাষাবাদ করতে পারব।

এবাপারে হাজির হাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ নিজামউদ্দিন হাওলাদার বলেন, আমি জনগনকে ওয়াদা করেছিলাম আমি যদি নির্বাচিত হয়ে জনগনের সেবা করার সুযোগ পায় তাহলে প্রথমে দীর্ঘদিন যাবত যারা কৃষি খাসজমি বন্দোবস্ত পেয়ে জমির দখল বুঝে পায়নি তাদের জমির দখল বুঝিয়ে দিব। আল্লাহর রহমতে আমি চরফ্যাসন ও মনপুরার উন্নয়নের রুপকার যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপি’র অনুমতি নিয়ে ভুমিবন্দোবস্ত কমিটির আন্তরীক সহযোগীতায় ভুমি বন্দোবস্ত পাওয়া ভুমিহীনদের জমির দখল বুঝিয়ে দিচ্ছি।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ শামীম মিঞা বলেন, কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত পাওয়া ভুমিহীন পরিবারগুলোর মধ্যে জমির দখল বুঝিয়ে দিচ্ছি। সোনারচর ২০ পরিবারের মধ্যে জমির দখল বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে । চর নজরুল ৮শত ভুমিহীনদের মাঝে জমির দখল বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য সীমানা নির্ধারন করা হয়েছে। জমির দখল বুঝিয়ে দেওয়ার কাজ চলছে। পর্যায়ক্রমে সকল চরে বন্দোবস্ত পাওয়া ভুমিহীনদের  জমির দখল বুঝিয়ে দেওয়া হবে।

-ছালাহউদ্দিন/রাজ





আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)